Last Update

Thursday, August 21, 2014

যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত না পাঠানোর নিশ্চয়তা পেলেই দূতাবাস ছাড়বেন অ্যাসাঞ্জ

উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সমর্পণ করা হবে না- এই নিশ্চয়তা না দিলে তিনি লন্ডনে ইকুয়েডরের দূতাবাস ত্যাগ করবেন না। তার আইনজীবী জেনিফার রবিনসন মঙ্গলবার এ কথা জানান। অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক অ্যাসাঞ্জ গত দুই বছর ধরে ইকুয়েডরের দূতাবাসে অবস্থান করছেন। শিগগিরই তিনি দূতাবাস ত্যাগ করবেন বলে সোমবার আভাস পাওয়া গেছে। যদিও তিনি হৃদরোগসহ অন্যান্য শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে। রবিনসন অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনকে জানান, ৪৩ বছর বয়সী অ্যাসাঞ্জ কখন দূতাবাস ত্যাগ করবেন এ বিষয়ে সময়সীমা বেঁধে দেয়া মুশকিল। তিনি বলেন, তাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সমর্পণ করা হবে না- এই আশ্বাস পাওয়া গেলে শিগগিরই তিনি দূতাবাস ত্যাগ করবেন। তবে আমরা এখন পর্যন্ত সে রকম কোনো লক্ষণ দেখিনি।
সুইডেনে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনা হয়। তিনি এ অভিযোগ দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করেন। তার আশংকা তাকে প্রথমে সুইডেন পাঠিয়ে পরে যুক্তরাষ্ট্রে সমর্পণ করা হতে পারে। অ্যাসাঞ্জ তার উইকিলিকসের মাধ্যমে মার্কিন সামরিক ও কূটনৈতিক গোপন নথি ফাঁস করেন। এ কারণে যুক্তরাষ্ট্রে তাকে বিচারের মুখোমুখি দাঁড়াতে হতে পারে। অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জেনিফার রবিনসন বলেন, ইকুয়েডর দূতাবাসে গত দু’বছর ধরে থাকার ফলে ৪৩ বছর বয়সী অ্যাসাঞ্জের স্বাস্থ্যের অবনতি হয়েছে। তিনি বলেন, ইকুয়েডরের রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন এবং আমেরিকায় ফেরত পাঠানো হবে না মর্মে নিশ্চিত হওয়ার পরই ইকুয়েডর দূতাবাস ছাড়বেন অ্যাসাঞ্জ।

Post a Comment

 
Back To Top