Last Update

Tuesday, August 26, 2014

বার্সায় সেই মেসিই

এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা ডিফেন্ডার কে? লিওনেল মেসি! অন্তত লুইস এনরিকের চোখে। মৌসুমের প্রথম ম্যাচেই বার্সেলোনার নতুন কোচকে গুণমুগ্ধ ভক্ত বানিয়ে ফেললেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। পাড় ভক্তের মতোই যুক্তি-টুক্তি গুলিয়ে খেয়ে এনরিকে বলে দিলেন, শুধু আক্রমণভাগ নয়, সব পজিশনেই বিশ্বসেরা মেসি। আসলে মেসিতে না মজে উপায় নেই এনরিকের। মেসির সৌজন্যেই বার্সার কোচ হিসেবে স্প্যানিশ লীগে তার পথ চলার শুরুটা হল মসৃণ। রোববার ন্যুক্যাম্পে মেসির জোড়া গোলে এলচেকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে লা-লীগার রাজত্ব পুনরুদ্ধারের অভিযান দারুণভাবে শুরু করেছেন কাতালানরা। শেষ পর্যন্ত আয়েশি জয় পেলেও দিনের শুরুটা যেন অশুভ কিছুরই ইঙ্গিত দিচ্ছিল। দু-দুটি শট পোস্টে প্রতিহত হওয়ার পর জাভিয়ের মাসচেরানোর লাল কার্ডে প্রথমার্ধেই দশজনের দলে পরিণত হয় বার্সা। ইনজুরির কারণে স্কোয়াডেই ছিলেন না নেইমার। নিষেধাজ্ঞার দরুন লুইস সুয়ারেজও দর্শক। মাঝমাঠে নেই অধিনায়ক জাভি। গত মৌসুমের দুঃস্মৃতিই কি তাহলে ফিরে আসবে? না, শংকার মেঘ জমতেই দেননি মেসি। জার্মানির কাছে বিশ্বকাপ ফাইনালে হারার পর এটাই ছিল তার প্রথম প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ। আর শুরুতেই ম্যাজিক শো দেখিয়ে মেসি ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন এই মৌমসুমটা তারই হতে যাচ্ছে। দলের প্রাণভোমরার কাছ থেকে হয়তো এমন কিছুই আশা করেছিলেন এনরিকে। কিন্তু তাকে চমকে দিয়েছেন লা মেসিয়া একাডেমির এক তরুণ সেনসেশন। বার্সেলোনা মূল দলের হয়ে লা-লীগায় নিজের অভিষেক ম্যাচেই গোল করেছেন ১৮ বছর বয়সী মুনির এল হাদ্দাদি। প্রাক-মৌসুমের শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে লিওনের বিপক্ষে জোড়া গোল করেছিলেন মুনির। সেই সুবাদেই নেইমারের অনুপস্থিতিতে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে অভিষেকের সুযোগ পেয়ে যান মরোক্কান বংশোদ্ভূত এই তরুণ ফরোয়ার্ড। পোস্ট বাধা না হলে ২২ মিনিটেই গোলের খাতা খুলতে পারতেন মুনির।
দশ মিনিট পর আবার পোস্ট কাঁপান ইনিয়েস্তা। তবে দুর্ভাগ্য বেশিক্ষণ বয়ে বেড়াতে হয়নি বার্সাকে। বিরতির তিন মিনিট আগে অচলায়তন ভাঙেন মেসি। বুসকেটসের পাস থেকে দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল জড়িয়ে দেন এলচের জালে। এগিয়ে যাওয়ার রেশ কাটার আগেই বিনামেঘে বজ পাত ন্যুক্যাম্পে! গোল বাঁচাতে গিয়ে এলচের রদ্রিগেজকে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন মাসচেরানো। কিন্তু তাতে স্বাগতিকদের খেলার ধার যেন আরও বেড়ে যায়। ৪৬ মিনিটে ইভান রাকিটিচের পাস থেকে ব্যবধান বাড়ান মুনির। ৬৩ মিনিটে এলচের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন মেসি। ইনজুরি টাইমে হ্যাটট্রিকের সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। প্রায় এক যুগ আগে বার্সার জার্সিতে অভিষেক ম্যাচে মেসির সতীর্থ ছিলেন এনরিকে। এখন তারা গুরু-শিষ্য। ভূমিকা বদলালেও মেসিতে মুগ্ধতা একটুও কমেনি এনরিকের, ‘মেসিই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। এমনকি যখন সে ডিফেন্স করে তখনও সে-ই সেরা। দিনের পর দিন আমরা তার অবিশ্বাস্য সব কীর্তি দেখছি। যতদিন সে গোল করতে চাইবে, ততদিনই সে সেরা থাকবে। আরও অনেকদিন সে জাদু দেখাবে।’ এনরিকের সাবেক দল সেল্টা ভিগোও মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেছে গেটাফের বিপক্ষে। লেভান্তের বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতেছে ভিলারিয়াল। অপর ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদকে ১-০ গোলে হারিয়ে চমক দেখিয়েছে নবাগত এইবার। এএফপি/ওয়েবসাইট।

Post a Comment

 
Back To Top