Last Update

Thursday, September 24, 2015

বিজেপিকে বেহাল করে রাহুল বিদেশে

রাহুল গান্ধী
জমি নিয়ে বিজেপিকে জেরবার করে ভারতের কংগ্রেস সহসভাপতি রাহুল গান্ধী গত মঙ্গলবার লন্ডন পাড়ি দিলেন। সেখান থেকে তিনি যুক্তরাষ্ট্র যাবেন। তবে বিহারের ভোটের আগে হঠাৎ কেন বিদেশযাত্রা, তার কোনো ব্যাখ্যা কংগ্রেসের কারও কাছে নেই। যেমন নেই তিনি কত দিনের জন্য সাত সমুদ্র পাড়ি দিলেন, কী কারণে এবং কবেই বা ফিরবেন সে উত্তরও। কংগ্রেসের মিডিয়া সেলের প্রধান রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা শুধু বলেছেন, জল্পনার কোনো কারণ নেই। রাহুল দলকে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন, ভবিষ্যতেও দেবেন। রাজনীতির প্রতি তিনি দায়বদ্ধ। সংসদের বাজেট অধিবেশনের ঠিক আগে ফেব্রুয়ারি মাসে রাহুল হঠাৎ অজ্ঞাতবাসে চলে যান। সে সময়েও জোর বিতর্ক হয়েছিল। কোথায় গেলেন, কেন গেলেন, কত দিনের জন্য গেলেন তার কোনো জবাব কংগ্রেসের কারও কাছে ছিল না। ৫৬ দিন পর ফিরে এসেই দিল্লির রামলীলা ময়দানে ভূমি অধিগ্রহণ বিলের বিরোধিতায় ডাকা কৃষক সমাবেশে তিনি বিজেপি ও সরকারের জমি-সংক্রান্ত নীতির তুলাধোনা করেন। এবারও সেই জমি নীতি তাঁর দলের প্রধান হাতিয়ার। লন্ডন পাড়ি দেওয়ার আগে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, বিহারে তো বটেই, অন্যত্রও বিজেপির মোকাবিলায় কংগ্রেসের প্রধান অস্ত্র ভূমি অধিগ্রহণ, প্রধানত কংগ্রেসের বিরোধিতায় সরকার যা প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হয়েছে।
বিহারের কংগ্রেসের প্রথম জনসভা, তারপর দিল্লিতে রামলীলা ময়দানে ভূমি অধিগ্রহণ বিল প্রত্যাহারের জন্য কৃষকদের বিজয় মিছিল এবং এবার বিদেশ যাওয়ার আগে উত্তর প্রদেশে কর্মিসভায় জমি নীতি নিয়ে রাহুল মোদিকে তুলাধোনা করেন। জমিকে হাতিয়ার করেই কংগ্রেস যে পুরোনো জায়গা ফিরে পেতে চাইছে, সেটা স্পষ্ট। এটাই বিজেপিকে বিচলিত করে তুলেছে। রাহুলের লন্ডন-যাত্রার দিনেই সংসদীয় মন্ত্রী ভেঙ্কাইয়া নাইডু, সড়ক পরিবহনমন্ত্রী নিতিন গড়কড়ি ও কৃষিমন্ত্রী বীরেন্দ্র সিং জমি নিয়ে কংগ্রেসের প্রচারের জবাবে সংবাদ সম্মেলন করেন। কৃষকদের জন্য কংগ্রেসের কান্নাকে কুম্ভীরাশ্রু বলে অভিহিত করে তাঁরা কংগ্রেসশাসিত রাজ্যে কংগ্রেস আমলের ‘জমি দখলের’ খতিয়ান তুলে ধরেন। তাঁদের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, অবিভক্ত অন্ধ্র প্রদেশে ৫ লাখ ৭ হাজার একর জমি কৃষকদের কাছ থেকে কেড়ে নিয়ে এসইজেড (বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল) করা হয়েছে, হরিয়ানায় নেওয়া হয়েছে ৮০ হাজার একর জমি। তিন মন্ত্রী বলেন, এই জমি নেওয়ার সময় কংগ্রেসিরা একজন কৃষকের কাছ থেকেও অনুমতি নেননি। প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট ভদ্রকেও আক্রমণের তির করে তিন মন্ত্রী বলেন, ভদ্র-মডেলে জমি নেওয়া হয়েছে। তখন কৃষকদের জন্য কংগ্রেসকে কাঁদতে দেখা যায়নি। এসবের উল্লেখ করে তিন মন্ত্রী জানতে চান, জনসভায় রাহুল বারবার বলছেন, এক ইঞ্চি জমিও কাড়তে দেবেন না। তাঁদের প্রশ্ন, রাহুলের ইঞ্চির মাপ কত? স্পষ্টতই, রাহুলের জমি প্রচার বিজেপিকে চিন্তায় রেখেছে।

Post a Comment

 
Back To Top