Last Update

Thursday, September 24, 2015

চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বন্দ্বের ফল ভয়াবহ হতে পারে

শি জিনপিং
চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ভালো সম্পর্ক গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, দুই দেশের দ্বন্দ্বের ফল ভয়াবহ হতে পারে। খবর এএফপির। শি জিনপিং রাষ্ট্রীয় সফরে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে গত মঙ্গলবার প্রথম দিন সিয়াটলে এক অনুষ্ঠানে ভাষণ দিতে গিয়ে এ কথা বলেন। চীনের প্রেসিডেন্ট জিনপিংয়ের এটাই প্রথম যুক্তরাষ্ট্র সফর। ভাষণে শি জিনপিং বেইজিং ও ওয়াশিংটনের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধি এবং পারস্পরিক সম্পর্ক বোঝাপড়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন। তিনি বলেন, ‘আমরা আরও বেশি মতৈক্য এবং কম বিরোধ ও সন্দেহ দেখতে চাই।
চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বিরোধ হলে সেটা উভয়ের জন্যই বিপর্যয় ডেকে আনবে এবং সারা বিশ্বেই তার প্রভাব পড়বে।’ মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে হোয়াইট হাউসে অনুষ্ঠেয় রাষ্ট্রীয় ভোজে যোগ দেওয়ার আগে জিনপিং যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি ও অন্যান্য খাতের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা বলেন, জিনপিং ও ওবামার আলোচনায় ইন্টারনেটে নজরদারির বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব পাবে। মার্কিন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও সরকারি তথ্যভান্ডার বা ডেটাবেইসে সাইবার হামলার নেপথ্যে চীনের জড়িত থাকার অভিযোগের জবাবে জিনপিং বলেন, চীনও বেশ কয়েকবার এ ধরনের হামলার শিকার হয়েছে। বেইজিং কোনোভাবেই বাণিজ্যিক চুরি বা এ ধরনের চেষ্টায় কাউকে সমর্থন দেবে না। মার্কিন বাণিজ্যমন্ত্রী পেনি প্রিটজকার বলেন, জিনপিংয়ের চলতি সফরের সময় বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তির ঘোষণা দেওয়া হচ্ছে। এতে পুঁজি ও বিশ্বমানের প্রযুক্তির ক্ষেত্রে চীনের উন্নয়নে মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোর সমর্থনের বিষয়টি স্পষ্ট হয়। জাতিসংঘে ভাষণ দেওয়ার মধ্য দিয়ে জিনপিংয়ের যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষ হবে। এদিকে শি জিনপিংয়ের এই সফরের সময় মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের কাছ থেকে ৩০০টি উড়োজাহাজ কেনার চুক্তি করেছে চীনের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। তবে এসব উড়োজাহাজ কোন মডেলের এবং দাম কেমন হবে, সে ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি।
বিক্ষোভ: চীনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদ জানাতে সিয়াটলে মঙ্গলবার শ খানেক লোক জড়ো হয়ে চীনবিরোধী বিক্ষোভ করে। জিনপিংয়ের যুক্তরাষ্ট্র সফর চলাকালে এ রকম আরও বিক্ষোভ হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।
চীনে মার্কিন ব্যবসার ওপর নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য দিয়ে সম্প্রতি সমালোচনারও মুখে পড়েন জিনপিং।

Post a Comment

 
Back To Top