Last Update

Monday, October 26, 2015

বাদশাহ সালমানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চান আট ভাই

সৌদি আরবের ১২ যুবরাজের আটজনই বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজকে সরানোর পক্ষপাতী বলে তাদের একজন দাবি করেছেন। তারা ৭৯ বছর বয়সী সালমানকে হটিয়ে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স আহমেদকে সিংহাসনে বসাতে চান। খবর ইন্ডিপেন্ডেন্ট ও টাইমস অব ইন্ডিয়ার। ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকাটি জানায়, নিরাপত্তার কারণে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই যুবরাজের বক্তব্য সৌদি রাজতন্ত্রের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে চলমান গুঞ্জনকে বাস্তব ভিত্তি দিল। বিষয়টি নিয়ে লন্ডনে সৌদি দূতাবাসে কথা বলার চেষ্টা করেও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ওই যুবরাজ বলেন, ‘ওলামা এবং ধর্মীয় নেতারা আহমদকেই পছন্দ করেন। সবাই নয়, তবে ৭৫ শতাংশ তো হবেই।’ সৌদি আরবে ধর্মীয় নেতাদের মতামত সব সময়ই গুরুত্ব পায়। ধর্মীয় এবং রাজতন্ত্রের নানা সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনা-সমালোচনারও এখতিয়ার থাকে তাদের। আবদুল আজিজ আল সউদ ১৯৩২ সালে সৌদি আরবের বর্তমান রাজতন্ত্রের প্রতিষ্ঠার পর তার বড় ছেলে সউদ বিন আবদুল আজিজকে পরিবারের বিদ্রোহে ক্ষমতা ছেড়ে দিতে হয়েছিল ভাই ফয়সলের কাছে।
১৯৬৪ সালের মতো ঘটনা এবারও ঘটতে পারে বলে ইন্ডিপেন্ডেন্টকে জানান আল সউদের নাতি ওই যুবরাজ। ‘বর্তমান অবস্থায় বাদশাহ সালমানের কাছে দুটি পথ খোলা আছে; এক. হতে পারে তিনি দেশ ছেড়ে চলে যাবেন, তাকে সম্মান এবং শ্রদ্ধার চোখে দেখা হবে। এছাড়া প্রিন্স আহমদকে পূর্ণ ক্ষমতাসহ ক্রাউন প্রিন্স ঘোষণা করা যেতে পারে। পাঁচ বছরে দেউলিয়া হতে পারে সৌদি আরব : আইএমএফ মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ সৌদি আরব পাঁচ বছরের মধ্যে দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম ধারাবাহিকভাবে কমতে থাকাই এ দেউলিয়া হওয়ার কারণ। আইএমএফের ‘মিডল ইস্ট ইকোনমিক আউটলুক’ প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যের ইন্ডিপেনডেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি বছর সৌদি আরবের বাজেট ঘাটতি ২১ দশমিক ৬ শতাংশে দাঁড়াতে পারে। আগামী বছর এর পরিমাণ হতে পারে ১৯ দশমিক ৪ শতাংশ। ফলে ব্যয় নির্বাহের জন্য আরও বেশি অর্থের প্রয়োজন হবে সৌদি আরবের। অথচ দেশটির বিদেশী মুদ্রার রিজার্ভ কমতে কমতে ৬৫৪ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলারে ঠেকেছে।

Post a Comment

 
Back To Top