Last Update

Monday, November 2, 2015

অনন্য নেইমার

মৌসুমের শুরু থেকেই অসাধারণ খেলছেন নেইমার। লিওনেল মেসির অনুপস্থিতিতে বার্সেলোনায় প্রতি ম্যাচেই যেন নিজেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন তিনি। গেটাফের বিপক্ষে আরেকবার জ্বলে ওঠা ব্রাজিলের এ ফরোয়ার্ডকে ‘অনন্য’ বলেছেন কোচ লুইস এনরিকে। শনিবার রাতে গেটাফেকে ২-০ গোলে হারায় বার্সেলোনা। এ জয়ে শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের পাশেই থাকল কাতালুনিয়ার দলটি। ২০১৩ সালে বার্সেলোনায় যোগ দেয়ার পর প্রথম মৌসুম কিছুটা খারাপ কাটলেও গত মৌসুমে জ্বলে ওঠেন নেইমার। আর এ মৌসুমের শুরু থেকেই খেলছেন দারুণ। সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে মেসি চোট পেয়ে ছিটকে পড়ার পর নেইমার যেন বার্সেলোনার কাণ্ডারি হয়ে উঠেছেন। এ পর্যন্ত লা লীগায় সর্বোচ্চ ৯টি গোল করেছেন তিনি, যার পাঁচটিই করেন মেসির অনুপস্থিতিতে। গেটাফের বিপক্ষে যেমন জয়সূচক গোলটি নেইমারের পা থেকেই আসে। এটা ছাড়া পুরো ম্যাচেই দারুণ খেলেন ২৩ বছর বয়সী এ তারকা। নেইমারের প্রশংসায় সংবাদ সম্মেলনে এনরিকে বলেন, সে আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে, সব বিষয়েই সে অনন্য। সে আমাদের জন্য গোল করে, করায়,
রক্ষণেও সাহায্য করে। দিন দিন সে উন্নতি করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে নেইমার তার উন্নতির ধারাবাহিকতা ধরে রাখবে বলেও আশা প্রকাশ করেন এনরিকে। নেইমারের প্রশংসা করে সতীর্থ সুয়ারেজ বলেন, ‘সবাই জানে, দলে তাদের দায়িত্ব কি। আমি তিন-চারজনকে কাটাতে পারব না- এটা নেইমারের কাজ।’ মেসিকে নিয়ে মাথাব্যথা নেই এনরিকের ইনজুরির কারণে এক মাসেরও অধিক সময় ধরে দলের বাইরে লিওনেল মেসি। অন্তত নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ের আগে তার মাঠে ফেরা হচ্ছে না। তবে আর্জেন্টাইন তারকাকে ছাড়াই জয়ের ধারায় রয়েছে বার্সেলোনা। নেইমার-সুয়ারেজ নৈপুণ্যে মেসির অভাবটা যেন টেরই পাচ্ছে না কাতালানরা। কোচ লুইস এনরিকের কণ্ঠেও একই সুর। তার মতে, মেসির অনুপস্থিতি সত্ত্বেও বার্সা এখন আরও বেশি ঐক্যবদ্ধ এবং টিম কম্বিনেশনটাও দুর্দান্ত। গেটাফের বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়ের পর এক সাক্ষাৎকারে এমন অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন এনরিক। এ ম্যাচে নেইমার ও লুইস সুয়ারেজ দু’জনই গোল করেন।
এনরিক বলেন, ‘মেসির অনুপস্থিতিতে সবাই নিজেদের সেরাটা দিচ্ছে এমনটি ভাবার কোনো কারণ নেই। ইনজুরির কারণে সে দলে না থাকলেও আমি খেলোয়াড়দের ওপর কোনো ধরনের বাড়তি চাপ দিচ্ছি ?না। সবাই এমনিতেই নিজেদের সেরাটা ঢেলে দিচ্ছে। দল হিসেবে আমরা এখন আগের চেয়ে বেশি ঐক্যবদ্ধ এবং সবাই নিজেদের খেলায় উন্নতি করছে।’ ২৬ সেপ্টেম্বর লাস পালমাসের বিপক্ষে হাঁটুর ইনজুরিতে ভুগে ৭-৮ সপ্তাহের জন্য ছিটকে যান মেসি। তার অনুপস্থিতিতে সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত সাত ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতেই জয়লাভ করে বার্সা। শুধু মেসিবিহীন প্রথম ম্যাচেই সেভিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলে হার মানে কাতালানরা। আর গত ২৮ অক্টোবরের কোপা দেল রে’র ম্যাচে ভিলানোভার বিপক্ষে প্রথম সারির দল নামিয়ে হতাশা উপহার পান এনরিকে। গোলশূন্য ড্র করে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন লীগের ম্যাচে বেয়ার লেভারকুসেন ও বাতে বোরিসভের বিপক্ষে জয় তুলে নেয় বার্সা। মেসিকে ছাড়া কাতালানদের জয়ের ধারা বজায় থাকবে কিনা, সেটিই এখন দেখার বিষয়! ওয়েবসাইট।

Post a Comment

 
Back To Top