Last Update

Monday, October 24, 2016

লন্ডনে তিন দিন ধরে বাড়ি ঘিরে পুলিশ

লন্ডনে গত শনিবার থেকে একটি বাড়ি
ঘিরে রাখে পুলিশ। গতকালও ওই এলাকায়
ছিল কড়া নজরদারি। ছবি: এএফপি
যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে একটি বাড়িতে অনেক পেট্রল ও বিস্ফোরক মজুত রয়েছে, এমন আশঙ্কায় সেখানকার বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। পশ্চিম লন্ডনের নর্থহল্টের ওই বাড়িটি গতকাল রোববার পর্যন্ত তিন দিন ধরে ঘিরে রেখেছিল পুলিশ। এ ছাড়া বৃহস্পতিবার পাতালরেলের একটি ট্রেনে সন্দেহজনক বস্তু উদ্ধারের ঘটনার পর ইতিমধ্যেই শহরের পাতালরেলসহ গণপরিবহনে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। দুই ঘটনায় শহরে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। লন্ডনের নর্থহল্ট এলাকার একটি বাড়ি থেকে গত শুক্রবার মধ্যরাতে ফোন পায় পুলিশ। পরে সেখানে গিয়ে বাড়িটিতে প্রবেশ করতে গিয়ে বিপাকে পড়ে তারা। বাসিন্দার সন্দেহজনক আচরণে বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছিল, ওই বাড়িতে আনুমানিক ৪০ বছর বয়সী এক পুরুষ বাসিন্দা রয়েছেন। তিনি অনেক পেট্রোল মজুত করে রেখেছেন, এ ইঙ্গিত পেয়ে সেখানে অভিযান চালানো থেকে অন্তত গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত বিরত ছিল পুলিশ।
গতকাল রোববার তৃতীয় দিনের মতো বাড়িটি ঘিরে ছিল তারা। বাংলাদেশ সময় গতকাল মধ্যরাত পর্যন্ত ওই ব্যক্তির সঙ্গে সমঝোতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। হঠাৎ বিস্ফোরণের আশঙ্কায় আশপাশের অনেককে সরিয়ে নেওয়া হয়। লন্ডনের পুলিশ বলেছে, এটা কোনো সন্ত্রাসী ঘটনা কি না, সে বিষয়ে তারা তখনো নিশ্চিত ছিল না। প্রতিবেশীরা বলেছেন, ওই বাড়িতে থাকা ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর সম্প্রতি ছাড়াছাড়ি হয়েছে বলে তাঁরা জানতে পেরেছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার লন্ডনের পাতালরেলে জুবিলি লাইনের নর্থ গ্রিনিচ স্টেশনে সন্দেহজনক একটি ব্যাগ পেয়ে চালকের কাছে দেন যাত্রীরা। ওই ব্যাগে বৈদ্যুতিক তার ও ঘড়ি আকৃতির বস্তু ছিল। এ ঘটনার পর ওই স্টেশন সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি পুরো লন্ডনের পাতালরেলগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। এই ঘটনায় পুলিশ শুক্রবার ১৯ বছর বয়সী একজনকে আটক করে। পুলিশ নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পাতালরেলে পাওয়া বস্তুটি ধ্বংস করেছে। বর্তমানে যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাসী হামলার সতর্কতার মাত্রা ‘সিভিয়ার’ বা ‘মারাত্মক’।

Post a Comment

 
Back To Top