Last Update

Tuesday, October 4, 2016

ইংল্যান্ড সিরিজের আগে আফগানদের পরে...

ইংল্যান্ড সিরিজের আগে বাংলাদেশের প্রস্তুতি হল ভালো-মন্দে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে নিজেদের ব্যাটিং-বোলিং ঝালিয়ে নিতে চেয়েছিল বাংলাদেশ। জয় নিয়ে কারও মাথা ব্যথা ছিল না। ধরে নেয়া হয়েছিল, আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচেই সহজ জয় পাবে বাংলাদেশ। আর ফর্মে না থাকা বাংলাদেশের বোলার ও ব্যাটসম্যানরা নিজেদের ঝালাই করে নিতে পারবেন। প্রথম ম্যাচ থেকেই সিরিজ জয় নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে হারের পর সিরিজ জয়ের চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের সামনে বড় হয়ে দেখা দেয়। শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের আগে আত্মবিশ্বাসের রসদ জুগিয়ে নিয়েছে টাইগাররা।
বাংলাদেশের রানমেশিন তামিম ইকবাল সিরিজের তিনটি ম্যাচেই দুর্দান্ত খেলেছেন। তিন ম্যাচে ২১৮ রান করে হয়েছেন সিরিজ সেরা। সিরিজ শেষে তামিম ইকবাল বলেন, ‘আমরা শেষ ম্যাচের মতো ওদের বিপক্ষে আগের দুটি ওডিআইতেও জয় আশা করেছিলাম। প্রথম দুই ম্যাচে ওরা ভালো ক্রিকেট খেলেছে। তবে আমাদের কিছু কিছু জায়গায় আরও উন্নতি করতে হবে।’ ব্যাটিংয়ে তামিম ও মাহমুদউল্লাহ ছাড়া আর কেউ ধারাবাহিক ছিলেন না। দীর্ঘদিন রানখরায় থাকা আরেক ওপেনার সৌম্য সরকার তিন ইনিংসে করেছেন ০, ২০ ও ১১ রান। ব্যাটিংয়ে তিন নম্বর জায়গাটা কার জন্য নির্ধারিত থাকবে এটা এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি টিম ম্যানেজমেন্ট। প্রথম ম্যাচে ইমরুল কায়েস, দ্বিতীয় ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ ও তৃতীয় ম্যাচে ওয়ানডাউনে ব্যাটিং করেছেন সাব্বির রহমান। তিন ব্যাটসম্যানই এই পজিশনে রান পেয়েছেন। তবে জায়গাটা কার জন্য সুনির্দিষ্ট হবে সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মাহমুদউল্লাহ ক্যারিয়ারে তিন থেকে সাত নম্বর সব পজিশনেই ব্যাট করেছেন। এই সিরিজেও তিন পজিশনে ব্যাট করে প্রমাণ করেছেন সব জায়গাতেই তিনি ফিট। প্রস্তুতির সিরিজে অভিষিক্ত মোসাদ্দেক হোসেনকে নিয়ে বড় পরিকল্পনা করতেই পারেন নির্বাচকরা। প্রথম ম্যাচে রাজকীয় অভিষেক হয়েছে মোসাদ্দেকের। দারুণ অলরাউন্ড পারফরম্যান্স করেছেন তিনি। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাটিংয়ে ভালো করতে না পারলেও বোলিংয়ে যেটুকু সুযোগ পেয়েছেন কাজে লাগিয়েছেন। সাকিব আল হাসান রানে আছেন।
তবে মুশফিকুর রহিম বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। সৌম্য ও মুশাফিকের ব্যাটিং কিছুটা চিন্তার কারণ হয়ে থাকল। দীর্ঘদিন পর ইনজুরি থেকে ফিরেছেন পেসার রুবেল হোসেন। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে পেসার তাসকিন আহমেদ আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলেছেন। রুবেল ভালো কিছু করতে পারেননি। কিন্তু তাসকিন জড়তা কাটিয়ে উঠে ভালো করেছেন। স্পিন আক্রমণে আরও শক্তিশালী করার জন্য মোশাররফ হোসেনের ফেরা ভালো খবর। পেস আক্রমণে মুস্তাফিজুর রহমানের অনুপস্থিতিতে মাশরাফি মুর্তজাকেই আক্রমণাÍক বোলিংয়ের দায়িত্ব নিতে হল। আফগানদের বিপক্ষে সিরিজে বাংলাদেশের বিরক্তিকর ফিল্ডিং চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে মুশফিকুর রহিমের কিপিং নিয়ে সবচেয়ে বেশি সমালোচনা হয়েছে। এই সিরিজে তার দৃষ্টিকটু স্টাম্পিং মিস তাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে। শেষদিনে মাশরাফি মুর্তজার চোট কিছু ভয় পাইয়ে দিলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের আগে তিনি সুস্থ হয়ে যাবেন বলে আশা করছেন চিকিৎসকরা। মাশরাফি বলেন, ‘সিরিজ জিততে পেরেছি এটা একটা ভালো দিক। দ্বিতীয় ম্যাচে হারের পর সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছি। এজন্য আরও ভালো লাগছে। সামনের সিরিজটা আরও চ্যালেঞ্জিং হবে। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলতে পারলে সিরিজটা ভালো হবে আমাদের জন্য। এর আগেও আমরা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলেছি।’

Post a Comment

 
Back To Top