Last Update

Tuesday, November 15, 2016

ধর্ষণ মামলায় অ্যাসাঞ্জকে জিজ্ঞাসাবাদ

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ
সুইডেনে দায়ের হওয়া একটি ধর্ষণ মামলায় উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ২০১০ সালে দায়ের করা ওই মামলায় গতকাল সোমবার তাঁকে সুইডেন ও ইকুয়েডরের কৌঁসুলিরা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। গ্রেপ্তার এড়াতে অ্যাসাঞ্জ বর্তমানে লন্ডনে ইকুয়েডরের দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়ে অবরুদ্ধ জীবন যাপন করছেন। গতকাল সুইডেনের প্রধান কৌঁসুলি ইংগিরিদ ইসজেরেন সেখানে ইকুয়েডরের একজন কৌঁসুলির মাধ্যমে গিয়ে অ্যাসাঞ্জকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। অ্যাসাঞ্জ তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। অ্যাসাঞ্জের আইনজীবী পার স্যামুয়েলসন বলেছেন, এর আগে সুইডেন ও ইকুয়েডরের দূতাবাসের মধ্যে কূটনৈতিক অনৈক্য ছিল। এ কারণে অ্যাসাঞ্জকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে দেরি হলো।
তিনি সুইডেনের একটি বার্তা সংস্থাকে বলেন, ‘আমি নিরপেক্ষভাবে খুবই আশাবাদী... অ্যাসাঞ্জ যেভাবে চেয়েছিলেন জিজ্ঞাসাবাদের সবকিছু সেভাবেই হয়েছে।’ অ্যাসাঞ্জকে আরও কয়েক দিন জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে তিনি জানান। কৌঁসুলিরা দূতাবাসে পৌঁছালে দূতাবাসের বাইরে থাকা বিক্ষোভকারীদের একটি ছোট দল ‘অ্যাসাঞ্জকে মুক্তি দাও’ এবং ‘তোমরা উইকিলিকসকে বন্ধ করতে পারবে না’ এ জাতীয় লেখা ব্যানার হাতে নিয়ে বিক্ষোভ করেন। অ্যাসাঞ্জের সঙ্গে করা চুক্তি অনুসারে জিজ্ঞাসাবাদের সময় সুইডেনের পুলিশের একজন পরিদর্শক উপস্থিত ছিলেন এবং তাঁর ডিএনএ নমুনা নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন তদন্তকারীরা। আফগানিস্তান ও ইরাকযুদ্ধের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পাঁচ লাখ গোপন নথি প্রকাশ করে উইকিলিকস। এরপর যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেওয়ার ভয়ে অ্যাসাঞ্জ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সুইডেন যেতে আপত্তি জানিয়ে আসছেন।

Post a Comment

 
Back To Top