Last Update

Sunday, March 19, 2017

প্যারিসে বিমানবন্দরে ‘হামলার চেষ্টা’

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের ওর্লি বিমানবন্দরে গতকাল শনিবার এক ব্যক্তি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছেন। তিনি সেখানে এক সেনাসদস্যের অস্ত্র কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। এ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা আগেই ওই ব্যক্তি প্যারিসের অন্য এলাকায় পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলিতে লিপ্ত হয়েছিলেন বলে পরে নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় অন্য কেউ হতাহত না হলেও একের পর এক সন্ত্রাসী হামলার শিকার ফ্রান্সে নিরাপত্তা ঘাটতি নিয়ে জনমনে আবার শঙ্কা ছড়িয়েছে। ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জ্যঁ-ইভ লো দ্রিয়াঁ বলেছেন, হামলাকারী ব্যক্তি পাহারায় থাকা এক সেনার অস্ত্র কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় অন্য দুই সেনা গুলি চালিয়ে তাঁকে হত্যা করেন। ওই ব্যক্তির এ আচরণের উদ্দেশ্য সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাঁর পরিচয়ও প্রকাশ করা হয়নি। তবে তিনি চরমপন্থার দিকে ঝুঁকেছিলেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। পুলিশের নজরদারির তালিকায় তাঁর নাম ছিল। আইন কর্মকর্তারা বলছেন, তাঁরা সন্ত্রাসবিরোধী তদন্ত শুরু করেছেন।
ঘটনার পরপরই ওর্লি বিমানবন্দর বন্ধ করে দেওয়া হয়। এদিকে বিমানবন্দরের ঘটনার পর পুলিশ নিশ্চিত করে, এ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা আগে ওই ব্যক্তিই প্যারিসের উত্তরাঞ্চলে এক গোলাগুলিতে জড়িত হন। সন্দেহবশত তল্লাশি চৌকিতে গাড়ি আটকানো হলে তিনি পুলিশের দিকে গুলি চালিয়ে পালিয়ে যান। পরে তাঁর গাড়িটি প্যারিসের দক্ষিণের শহরতলিতে পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আরেকটি গাড়িতে করে ওর্লি বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন। ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ফ্রান্সে দফায় দফায় জঙ্গিবাদীদের হামলায় অন্তত ২৩০ জন নিহত হয়েছে। দেশটিতে আগামী মাসেই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রথম ধাপ। এ অবস্থায় নিরাপত্তার বিষয়টিকে সরকার খুব গুরুত্ব দিচ্ছে। ২০১৫ সালের নভেম্বরে একাধিক সন্ত্রাসী হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এখনো জরুরি অবস্থা জারি রয়েছে ফ্রান্সে। আইন কর্মকর্তারা বলেছেন, কর্তৃপক্ষ বিমানবন্দরের ঘটনাটিকে অত্যন্ত গুরুতর মনে করছে। বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাহিনী ব্যাপক অভিযান চালায়। এ সময় বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের বিশেষজ্ঞরা তল্লাশি চালান। পুলিশ বলেছে, হামলা চেষ্টাকারী ওই ব্যক্তির কাছে কোনো বোমা ছিল না। প্যারিস থেকে ১৩ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত ওর্লি এলাকায় ফরাসি রাজধানীর দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দরটির অবস্থান।
ফ্রান্সে কয়েকটি বড় সন্ত্রাসী হামলা
*৭ জানুয়ারি ২০১৫: শার্লি এবদো কার্যালয়ে হামলা
*১৩ নভেম্বর ২০১৫: প্যারিসে একাধিক হামলা
*১৪ জুলাই ২০১৬: নিসে ট্রাক হামলা

Post a Comment

 
Back To Top