Last Update

Tuesday, April 18, 2017

জাতীয় পার্টি চাঁদাবাজি দখলবাজিতে যুক্ত নয়

জাতীয় পার্টি উন্নয়নের রাজনীতি করে। আমরা কোনো বাহিনীতে বিশ্বাস করি না। আমার দলের কোনো নেতাকর্মী সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও দখলবাজির সঙ্গে জড়িত নয়। সোমবার ঢাকার দোহারের সুতারপাড়া মধুরচর গ্রামে জাতীয় পার্টি আয়োজিত যোগদান ও কর্মী সমাবেশে অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি এ কথা বলেন। সালমা ইসলাম আরও বলেন, বিগত সময়ের এমপি-মন্ত্রীরা লোক দেখানো কাজ করেছেন। গ্রামের সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করেননি। তাই অবহেলিত দোহার-নবাবগঞ্জের প্রত্যন্ত গ্রামগুলোয় কোনো রাস্তাঘাট হয়নি। সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন নয়াবাড়ীতে পদ্মা নদীতে বাঁধ হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে বিলাশপুর ও মধুর চরের ভাঙনকবলিত এলাকায় নদী শাসনের কাজ হবে। আপনারা আমার সঙ্গে থাকলে দোহার-নবাবগঞ্জের কোনো অলিগলি বাকি থাকবে না।
সর্বত্রই উন্নয়নের ছোঁয়া লাগবে। সালমা ইসলাম এ সময় এলাকাবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে একটি রাস্তা ও দুইটি ছোট কালভার্ট নির্মাণের জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। আবদুল খালেকের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে দুই শতাধিক নেতাকর্মী বিভিন্ন দল থেকে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন। এ সময় সেখানে ছিলেন ঢাকা জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, নবাবগঞ্জ উপজেলার সাবেক সভাপতি হুমায়ন কবির, যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান চৌধুরী রানা, দোহারের সভাপতি ডা. আলাউদ্দিন আল আজাদ, সদস্য সচিব আবদুল আলীম, বশির আহমেদ, হায়দার বেপারি, লোকমান হোসেন, সালাম মহুরী, মো. হারুন, শহিদুল ইসলাম, ডা. তরুণ, পারভেজ মোল্লা, আবদুল হাসেম, জসীম উদ্দিন পান্নু, নারী নেত্রী রেশমী হোসেন আজাদ, আসমা আক্তার রুমি প্রমুখ।

Post a Comment

 
Back To Top